শিরোনাম

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার সোনাগাজীতে ১২ বছরের স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে

 ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ধর্ষণের অভিযোগে আওয়ামী লীগের এক নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ১২ বছর বয়সী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে।  উপজেলার ভাদাদিয়া এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার রাতে তাকে  গ্রেপ্তার করা হয়।



  গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম  তমিজ উদ্দিন বয়স (৫০)।  ধর্ষণকৃত ব্যাক্তি উপজেলা মতিগঞ্জ ইউনিয়নের  ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি।

  পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মেয়েটির বাবা আওয়ামী লীগ নেতা তমিজ উদ্দিনের আসবাবের দোকানে কাজ করতেন।  ১ অক্টোবর, যখন মেয়েটি প্রাইভেট পড়তে স্কুলে যাচ্ছিল, তমিজ উদ্দিন তাকে ডেকে দোকানের ভিতরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে।  তিনি ঘটনা সম্পর্কে কাউকে কিছু জানালে তাকে এবং তার বাবাকে হত্যার হুমকিও দিয়েছিলেন।  তমিজের স্ত্রী ঘটনাটি দেখে ফেললে  তাড়াতাড়ি  করে ছাত্রটিকে তাড়িয়ে দেয়।  তামিজ ও তার স্ত্রীর মধ্যে এ নিয়ে  তর্ক হয় তখন  আশেপাশের লোকেরাও এ সম্পর্কে জানতে পারেন।

  স্কুলছাত্রীর মা দাবি করেছেন যে তামিম উদ্দিন তার মেয়েকে দোকানের ভিতরে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে।  যদিও তার মেয়ে বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি জানায়, তমিজ উদ্দিনের ভয়ে তারা এত দিন মামলা দায়ের করার সাহস পায়নি।  বৃহস্পতিবার রাতে তিনি স্থানীয়দের সহায়তায় থানায় গিয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।  তারা এই ঘটনায় তামিজ উদ্দিনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরও দাবি জানান।

  সোনাগাজী মডেল পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ  আবদুর রহিম সরকার প্রথম আলোকে জানান, পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত তমিজ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে।  আবদুর রহিম দাবি করেছেন, জিজ্ঞাসাবাদের সময় তমিজ উদ্দিন মেয়েটিকে ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করেছেন।

  পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার মেয়েটিকে ফেনীর আড়াইশ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে শারীরিক পরীক্ষা করবে।  পরীক্ষা শেষে তাকে ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে তোলা হবে।  সাথে অভিযুক্ত তমিজ উদ্দিনকেও আদালতে হাজির করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ