শিরোনাম

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

মানুষের হিংসা ও জুলুম থেকে মুক্তি লাভের আমল

 হিংসা ও জুলুম থেকে মুক্তি লাভের আমলঃ 

"যারা (আল্লাহর ওপর) ইমান আনে এবং আল্লাহর জিকিরে তাদের অন্তকরণ প্রশান্ত হয়, হাঁ, আল্লাহর জিকিরেই অন্তরসমূহকে প্রশান্ত করে' (সুরা রা'দ : ২৮)"

এটি পবিত্র কোরআনেরই একটি আয়াত। এখানে আল্লাহ তাআলা বান্দাকে তার সুন্দর সুন্দর নামের জিকির বা আমল করার কথা বলেছেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাদিসে আলাদা আলাদা ভাবে এ নামগুলোর আমল করার ব্যাপারে তাগিদ দিয়েছেন। আল্লাহর গুণবাচক সব নামের আমলে রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত।

মনের প্রশান্তি, দুঃখ নিবারণকারী ও রোগের উপশমকারী এবং দুশ্চিন্তার বিপদ থেকে মুক্তির একমাত্র মহৌষধ আল্লাহর জিকির



‘ইয়া-মুজিল্লু’- আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নাম গুলোর একটি। যার অর্থ হলো- ‘লাঞ্ছনা ও অপমানকারী।’আল্লাহর গুণবাচক নাম

ইয়া-মুজিল্লু’ -এর জিকিরের আমল ও ফজিলত তুলে ধরা হলো-
‘ইয়া-মুজিল্লু’অর্থ : ‘লাঞ্ছনা ও অপমানকারী।
তাই ’পড়ুন : আল্লাহর ‍গুণবাচক নাম "ইয়া মুজিল্লু"

আমল ও ফজিলতঃ কোনো ব্যক্তি যদি কারো হিংসা বা জুলুমকে ভয় করে; তবে সে যেন আল্লাহ তাআলার পবিত্র গুণবাচক ইয়া-মুজিল্লু’ নামটি ৭১ বার পাঠ করার পর সিজদায় গিয়ে আল্লাহর কাছে হিংসুক এবং জালেম থেকে হিফাজত কামনা করে। আল্লাহ তাআলা অবশ্যই আমলকারীকে নিরাপত্তা দেবেন। ইনশাআল্লাহ।

তাই আল্লাহর একেকটি নামের যেমন তাৎপর্য রয়েছে, তেমনি প্রতিটি নামের উপকারিতাও রয়েছে।

অন্যত্র এসেছে, যে ব্যক্তি শত্রুর আক্রমণ থেকে বেঁচে থাকতে নামাজের পর সিজদায় গিয়ে আল্লাহ তাআলার পবিত্র গুণবাচক নাম  "ইয়া-মুজিল্লু"-এই নামের জিকির করে। আল্লাহ তায়ালা সেই ব্যক্তিকে শত্রুর আক্রমণ থেকে হিফাজত করবেন ।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে শত্রুর ক্ষতি ও হিংসুকের হিংসা থেকে হিফাজত থাকতে আল্লাহর এ গুণবাচক নামের তাসবিহ পাঠ করার তাওফিক দান করবেন। ইনশাআল্লাহ। 

বিস্তারিত জানতে ভিডিওটি দেখুন 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ